ব্রেকিং নিউজ
সড়ক দুর্ঘটনায় হাইমচরের ২ শিক্ষার্থী নিহত কোটা সংস্কারের দাবিতে রাবি-রুয়েট শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ রাজশাহী শিরোইল বাসস্ট্যান্ড এলাকা হতে ২২ জুয়ারী’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৫ হাইমচর সরকারি মহাবিদ্যালয় এইচএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত ফরিদগঞ্জে সাবেক এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগ জামালপুরে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন মাদারগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে পৌর কাউন্সিলর হাসানুজ্জামান সাগরের ঈদ উপহার বিতরণ সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় হাইমচরের ৩ রেমিট্যান্স মৃত্যুতে ওমর শরীফ টিটুর শোক মোহনপুরে পিজি সদস‌্যদের পোল্ট্রি খাদ্য ও উপকরন বিতরন রাজশাহীর জননিরাপত্তা আদালতে হত্যা মামলায় তিন জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

প্রস্তাবিত ‘যৌন হয়রানি প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন, ২০২২’ শীর্ষক আলোচনা সভা

Reporter Name / ১৩৭ Time View
Update : শনিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২৩

জামালপুর প্রতিনিধিঃ

জামালপুরে এডুকেয়ার বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় ও জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম এর আয়োজনে প্রস্তবিত ‘যৌন হয়রানি প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন, ২০২২’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (০২ ডিসেম্বর) সকালে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের উপ পরিচালকের কার্যালয় সভাকক্ষে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শামীমা খান এর সভাপতিত্বে
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহেল মাহমুদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কামরুন্নাহার, সমাজসেবা কর্মকর্তা ফারুক মিয়া, জুনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি ডা. শামসুর রহমান, অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন, মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম, কাউন্সিলর রাজিব সিংহ সাহা, সনাক সভাপতি অজয় পাল, কলেজ শিক্ষক জিন্নাত জেরিন প্রমূখ।

এসএম আতিকুর রহমান সুমন এর সঞ্চালনায়
আইনের খসড়া প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ এর আঞ্চলিক সমন্বয়কারী জয়ন্ত কর।

বক্তারা বলেন, যৌন হয়রানির ঘটনা সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ছড়িয়ে পড়েছে। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রতিনিধির নিয়ে আরও আলাপ আলোচনা করে আইনের খসড়াটি আরও সমৃদ্ধ করতে হবে। যৌন হয়রানির প্রতিরোধ ও প্রতিকারের ক্ষেত্রে আমাদের নানা দুর্বলতা রয়েছে বিধায় এই আইনটির প্রয়োজন আছে। আইন প্রণয়নে সব কিছুর সমাধান না হলেও আইনটি অপরাধীদের জন্য আতঙ্ক তৈরি করবে। আইনটি ক্ষমতাশালীদের বিরুদ্ধে ভিকটিমদের জন্য একটা সুরক্ষা তৈরি করবে। খসড়ায় উল্লেখ করা অভিযোগ কমিটির স্থলে অভিযোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি যুক্ত করা দরকার বলে আমি মনে করেন বক্তারা।

বক্তারা আরও বলেন, ‘জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম’ কন্যাশিশু তথা নারীর অবস্থা ও অবস্থানের ইতিবাচক পরিবর্তনে কর্মরত সমমনা সরকারি-বেসরকারি ১৯৮টি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিবর্গের কাজের সমন্বয় এবং অভিজ্ঞতা বিনিময়ের একটি শক্তিশালী প্ল্যাটফর্ম। কন্যাশিশুর প্রতি ইতিবাচক মনোভাব ও তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় গণসচেতনতা সৃষ্টি ও নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে অ্যাডভোকেসির জন্য ফোরাম-এর সকল সংগঠনের সহায়তায় তৃনমূল থেকে শুরু করে জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশে নারী ও শিশুর জন্য নিরাপদ কর্মস্থল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং পাবলিক প্লেসে সামগ্রিক (হাট-বাজার, রাস্তা, খেলার মাঠ, মার্কেট ও পরিবহণ) নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিদ্যমান আইন ও নীতিমালাসমূহের আলোকে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে ইতিমধ্যে একটি প্রস্তাবিত পূর্ণাঙ্গ আইন (খসড়া) প্রণয়ন করা হয়েছে। আইনটির পর্যালোচনা করা আজকের সভার উদ্দেশ্য। আইনটিতে সবার দিক বিবেচনা করতে হবে, যাতে কেউ আবার অপব্যবহারের সুযোগ না পায় না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
data macau apk togel situs togel terpercaya data macau