ব্রেকিং নিউজ
সড়ক দুর্ঘটনায় হাইমচরের ২ শিক্ষার্থী নিহত কোটা সংস্কারের দাবিতে রাবি-রুয়েট শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ রাজশাহী শিরোইল বাসস্ট্যান্ড এলাকা হতে ২২ জুয়ারী’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৫ হাইমচর সরকারি মহাবিদ্যালয় এইচএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত ফরিদগঞ্জে সাবেক এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগ জামালপুরে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন মাদারগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে পৌর কাউন্সিলর হাসানুজ্জামান সাগরের ঈদ উপহার বিতরণ সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় হাইমচরের ৩ রেমিট্যান্স মৃত্যুতে ওমর শরীফ টিটুর শোক মোহনপুরে পিজি সদস‌্যদের পোল্ট্রি খাদ্য ও উপকরন বিতরন রাজশাহীর জননিরাপত্তা আদালতে হত্যা মামলায় তিন জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

মেঘনার ভাঙনে বিলিন হচ্ছে ঈশানবালার বিরাট এলাকা

Reporter Name / ১১১ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল, ২০২২

হাইমচর প্রতিনিধিঃ

স্বাধীনতার পর থেকে মেঘনার ভাঙনে চাঁদপুর জেলা, বিগত ৫০ বছরেও ভাঙন রোধে রোধে স্হানীয় বাঁধ দেওয়া হয়নি, ফলে শুস্ক মৌসুমে মেঘনার ছোবলে নদী গর্ভে চলে যাচ্ছে , তার চেয়ে বেশি ভাঙনের শিকার হয় বর্ষা মৌসুমে,
প্রতিবছর ভাঙন রোধে সরকারি ভাবে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ করে, কোন রকম ভাবে জিও বেগে বালু ভরে কিনবা আংশিক সিসি ব্লক ফেলে জোরাতালি দিয়ে ঠেকানো হলেও তাহা আবার নদী গর্ভে চলে যেতে দেখা যায়।এতে করে সরকার যেমনি আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে , ঠিক তেমনি করে নদীর পারবাসি ভিটে মাটি হারিয়ে নিশ্বঃ হচ্ছে।

এদিকে চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার ৪ নং নীলকমল ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন ঈশানবালার চর অঞ্চল মেঘনার ভাঙনে মানচিএ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে, চলতি শুস্ক মৌসুমে কয়েক কিলো মিটার কৃষি জমি মেঘনার বুকে তলিয়ে গেছে, এতে করে কৃষকদের কয়েক হেক্টর কৃষি জমি চলে যাওয়ায়, কৃষকরা কৃষি ফলাতে পারছে না বলে তারা জানান,
কৃষকরা আরো জানান আমাদের পৈতৃক সম্পর্ত্বিতে আমরা কৃষি কাজ করে ফসল ফলিয়ে জীবিকা অর্জন করি, অথচ স্হানীয় বাঁধের কারনে প্রতি বছরই রাক্ষসী মেঘনার ভাঙন কবলে আমরা ভিটে হারা হয়, তার সাথে কর্মহীন হয়ে পরি। বার বার সরকারি ভাবে পদক্ষেপ নেওয়া হলেও বিগত ৩০ বছরেও তাহা বাস্তবাহিত হয়নি, যার কারনে অনেক মানুষ আজ অনেএে চলে গেছে, কমে গেছে জনসংখ্যা।

এদিকে ঈশানবালার ব্যবসায়ি সহ এলাকা বাসি আমাদের জানান, আমরা ছোট থেকে দেখে আসছি মেঘনার ভাঙন, আমাদের বাব দাদা কালের বহু সম্পদ মেঘনার বুুকে তলিয়ে গেছে, কিন্তু কখনো ফিরে পাই না ওই সব সম্পদ, তাছারা পুরনো বাজার টি মেঘনার মাঝ নদীতে, বিগত ২৫ বছরে মেঘনার ভাঙন কবলে পরে ঈশানবালা বাজার আজ চতুর্থ বাজারে পরিণত হযেছে, বিগত বছরে একে একে তৈরিকৃত মোট ৩ টি বাজার নদি গর্ভে বিলীন হযেছে, বর্তামানে যেই বাজার টি করা হয়েছে তাহা চতুর্থ বাজার, এই বাজারে শ্বতাধিক দোকনাপাট রযেছে, স্হানীয় মানুষ ব্যবসা করে পরিবার পরিজন নিয়ে দিনাতিপাত করে আসছে, চলতি বছর যদি বাঁধের কোন ব্যবস্হা না করা হয়, হয়ত আগামি বছর নদিটি বাজারে এসে মিলিত হবে। এ বাজারে ৪ নং নীলকমল ইউনিয়ন পরিষদ সহ রযেছে পুলিশ ফাঁড়ি, ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এসব প্রতিষ্ঠানের কারনে আইনের নিরাপত্বা, নাগরিক সেবা সহ শিক্ষার আলোর প্রদীপ, মেঘনার ভাঙন দীর্গ হলে এসব সেবা থেকে ইউনিয়ন বাসি বঞ্চিত হবে বলে তারা জানান,আর তাই ৪নং নীলকমল ইউনিয়ন মেঘনার ভাঙন থেকে রক্ষা করতে শিক্ষামন্ত্রী সহ চাঁদপুুরের জেলা প্রশাসক অতবি জরুড়ি ব্যবস্হা গ্রহন করে ভাঙন এলাকায় সি সি ব্লক দিয়ে বাঁধের ব্যবস্হা করার জর্ন জোর দাবি জানান এলাকাবাসি সহ ইউনিয়ন বাসি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
data macau apk togel situs togel terpercaya data macau